মার্ক জুকারবার্গ এর প্রতিষ্ঠান ফেসবুক (মেটা) কে দেওয়া হল চুরির দায়

|

এবার ফেসবুকের বিরুদ্ধে উঠল ‘চুরি’র অভিযোগ! ফটো অ্যাপ Phhhoto-র অভিযোগ, ইনস্টাগ্রামের জন্য তাদের থেকে একটি ফিচার হুবহু কপি করেছে ফেসবুক। সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্টের বিরুদ্ধে বিশ্বাসভঙ্গের অভিযোগ তুলেছে ফটো অ্যাপটি।

ডিজিটালের দুনিয়ায় অল্পদিনের মধ্যেই দারুণ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ইনস্টাগ্রাম (Instagram)। ছবি, ভিডিও, রিলস পোস্টের পাশাপাশি ফেসবুকের অন্তর্ভুক্ত এই অ্যাপটি অনেকেই ছবি এডিট করার ক্ষেত্রেও ব্যবহার করে থাকেন। অর্থাৎ অনেক ফটো এডিটিং অ্যাপকে রীতিমতো চাপে ফেলে দিতে পারে এর দুর্দান্ত সব ফিল্টার। Phhhoto নামের ফটো অ্যাপটির দাবি, তাদের ফিচার নকল করে আরও অত্যাধুনিক হতে চাইছে ইনস্টাগ্রাম। যা স্বাস্থ্যকর প্রতিযোগিতার পরিপন্থী।

তবে এই প্রথমবার নয়, এর আগেও বিশ্বাসভঙ্গের অভিযোগ উঠেছে ফেসবুকের বিরুদ্ধে। প্রতিযোগিতার তাগিদে একাধিকবার অন্যকে নকল করেছে তারা বলেই অভিযোগ তোলা হয়েছে। এবার সেই তালিকায় নায় সংযোজন Phhhoto অ্যাপ। এবার প্রশ্ন হল ঠিক কোন অ্যাপটি নকল করা হয়েছে ইনস্টাগ্রামে?

জানা গিয়েছে, Phhhoto অ্যাপের মাধ্যমে পয়েন্ট অ্যান্ড শুট বার্স্টে একসঙ্গে পাঁচটি ফ্রেম একবারে তৈরি করা যায়। যা GIF ভিডিওর মতো শেয়ার করতে পারেন ইউজাররা। সেই ফিচারটিই ইনস্টাগ্রামেও খুঁজে পাওয়া গিয়েছে। এই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের বুমেরাং ফিচারটি অনেকটা এরকমই। এই ফিচারটি যে ফেসবুকের (Facebook) মস্তিষ্কপ্রসূত নয়, তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই।

২০১৪ সালে আত্মপ্রকাশ করেছিল Phhhoto অ্যাপ। তবে প্রতিযোগিতার বাজারে তা বেশিদিন টিকে থাকতে পারেনি। ২০১৭ সালে বন্ধ হয়ে যায় অ্যাপটি। সংস্থাটির আরও দাবি, অ্যাপটির ফিচারগুলি জানার জন্য খোদ ফেসবুক কর্ণধার মার্ক জুকারবার্গ এটি ডাউনলোডও করেছিলেন। তাই ফিচার চুরির অভিযোগ তুলে ফেসবুকের থেকে আর্থিক ক্ষতিপূরণ চাওয়া হয়েছে। তবে এই চুরির অভিযোগ নিয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও প্রতিক্রিয়া দেয়নি ফেসবুক। যা বর্তমানে পরিচিত মেটা (META) নামে।








Leave a reply