না জানলেই মহা বিপদ, ডিমের সঙ্গে বা ডিম খাওয়ার পরে ভুলেও খাবেন না এই পাঁচ খাবার

|

শরীর ঠিক রাখতে প্রতিদিন সকালে একটি করে ডিমসেদ্ধ খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন ডাক্তারেরা। সুষম খাদ্য হিসাবে ডিম অত্যন্ত উপকারী। তাই ব্রেকফাস্ট টেবিলে পাউরুটি ও কলার সাথে নিত্যদিনের সঙ্গী ডিম। তবে আপনি কি জানেন ডিম খাওয়ার সাথে সাথে এই পাঁচটি খাবার খেলে হতে পারে আপনার শরীরের মারাত্মক ক্ষতি …এমনকি মৃত্যুও!

দুধ ও ডিম: শরীর ঠিক রাখতে এড়িয়ে চলুন দুধ এবং ডিম এর কম্বিনেশন, কেননা দুটি খাদ্যই গুরুপাকের মধ্যে পড়ে। দুধের মধ্যে থাকে ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম ,ভিটামিন সি সহ উচ্চমাত্রার প্রোটিন। এদিকে ডিমও হলো উচ্চ মাত্রার প্রোটিনের উৎস। তাই এই দুটি খাদ্য একসাথে গ্রহণ করলে শরীরের উপর মারাত্মক প্রভাব পরে।

টক দই ও ডিম: শরীরকে ঠাণ্ডা রাখতে টকদই অত্যন্ত উপকারী।তাই কখনোই কোনো গরম খাবার টকদই এর সাথে খাওয়া উচিত নয়। বিশেষত ডিম টকদই বা ডিমের পোচ এর সাথে টক দই একদমি খাবেন না, কেননা এই দুটি খাবার একসাথে খেলে শরীর তা হজম করতে পারে না।

পাতিলেবু এবং ডিম: ডিম দিয়ে আমরা হরেক রকমের স্যালাড তৈরি করে থাকি যার মধ্যে সবথেকে পপুলার হল এগ স্যালাড। স্যালাডটিকে সুস্বাদু করে তুলতে এর মধ্যে এড করা হয় গোলমরিচের গুড়ো ও পাতিলেবুর রস। তবে আপনি কি জানেন অজান্তেই এগ স্যালাড খাওয়ার মাধ্যমে আপনি আপনার শরীরের ক্ষতি ডেকে আনছেন। লেবু এবং ডিম একসাথে খেলে ক্ষতিগ্রস্ত হয় রক্ত জালিকা যার ফলে হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

মধু ও ডিম: প্রতিদিন সকালে এক চামচ মধু বাড়িয়ে দেয় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। তবে ভুলেও মধু ও ডিম কখনো একসঙ্গে খাবেন না। বাধিয়ে ফেলতে পারেন কিডনির গুরুতর সমস্যা। মধু এবং ডিম একসাথে খেলে কিডনির ওপর ভীষণ চাপ পড়ে যার ফলে কিডনি সঠিকভাবে ফাংশন না করতে পারায় শরীরের মধ্যে টক্সিনের পরিমাণ বেড়ে যায়।

কলা ও ডিম: নিত্য ব্রেকফাস্টের প্লেটে চাই ই চাই পাউরুটি, কলা ও ডিম! তবে আপনি কি জানেন কলা এবং ডিম এই দুই খাবার একসাথে খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে শুরু করে হজমের সমস্যায় ভুগতে পারেন। পেটে নানাবিধ সমস্যা থেকে বাঁচতে ব্রেকফাস্টের সময় অন্যান্য খাবারের সাথে কলা খেলেও সেই সময় ডিম একদমই খাবেন না।








Leave a reply