রিয়ালে নিগৃহীত হতে হতে হামেশ এখন ঠিকানা গড়লেন এভার্টনে

|

এক সময় ছিলেন বিশ্বের অন্যতম সেরা স্ট্রাইকার। ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপে গোল্ডেন বুটটা তার হাতেই উঠেছিল সর্বোচ্চ গোল করার কারণে। কলম্বিয়ান তরুণ ফুটবলার হামেশ রদ্রিগেজ তখন ছিলেন উঠতি ফুটবলারদের এক অনুপ্রেরণার নাম। কিন্তু সেই রদ্রিগেজ রিয়াল মাদ্রিদে নাম লেখানোর পরেই কেন যেন নিজেকে হারিয়ে ফেলতে শুরু করেন।

গত দুই-তিন মৌসুম তো তার নাম-গন্ধও শোনা যাচ্ছিল না। রিয়ালের সেরা একাদশে নিজের স্থান করে নিতে পারেননি কখনো। ছিলেন সাইডবেঞ্চার। গত মৌসুমে তো সাইড বেঞ্চেই বসে বসে কাটাতে হয়েছে। বদলি হিসেবেও মাঠে নামার সুযোগ পাননি তিনি।

একের পর এক বঞ্চনা আর নিগ্রহের শিকার হতে হতে অবশেষে রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়লেন কলম্বিয়ান এই স্ট্রাইকার। নাম লেখালেন ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ ক্লাব এভার্টনে। মূলতঃ রিয়াল মাদ্রিদ তাকে ছেড়ে দেয়ার পর নতুন ঠিকানা খুঁজে নিয়েছেন তিনি।

২৯ বছর বয়সি এই কলম্বিয়ান তারকা সঙ্গে দুই বছরের জন্য চুক্তি করেছে এভারটন। চুক্তির মেয়াদ আরও এক মৌসুম বৃদ্ধির সুযোগ রয়েছে। চুক্তির আর্থিক অঙ্ক ২০ মিলিয়ন ব্রিটিশ পাউন্ড।

২০১৪ বিশ্বকাপে গোল্ডেন বুট জেতার পর মোনাকো থেকে ৮ কোটি পাউন্ডে রিয়ালে এসেছিলেন হামেশ রদ্রিগেজ। ২০১৭ সালে তাকে দুই মৌসুমের জন্য লোনে বায়ার্ন মিউনিখে পাঠায় রিয়াল। তবে গত বছরের জুলাইয়ে আবার রিয়ালে ফিরলেও ভাগ্য বদলায়নি তার। গত মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদের একাদশে নিয়মিত জায়গা পাননি। সুযোগ পেয়েছিলেন মাত্র ১৪ ম্যাচে। লিগে মাত্র ৫ ম্যাচে প্রথম একাদশে থাকতে পেরেছিলেন।

আগামী মৌসুমেও রিয়ালের কোচ কোচ জিনেদিন জিদানের গুডবুকে ছিলেন না তিনি। তাই কলম্বিয়ান এই তারকাকতে ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নরা। তবে গ্যারেথ বেলকে রিয়াল ছাড়বে কি না, সেদিকে তাকিয়ে ফুটবলমহল।

তবে রিয়ালের সদ্য সাবেক হওয়া এই তারকা নতুন ক্লাবে নিজের কেরিয়ারে সাফল্যে রাঙাতে চান। ক্লাবের ওয়েবসাইটে রদ্রিগেজ জানিয়েছেন, ‘এখানে দারুণ কিছু অর্জনের জন্য মুখিয়ে আছি। সাফল্য পেতে চাই, যেটা পাওয়া সবার লক্ষ্য।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি এখানে এসেছি আরও উন্নতি করতে এবং ভালো খেলার চেষ্টা করতে। এখানে এসেছি দলকে জিততে সাহায্য করতে। উপভোগ্য ফুটবল খেলার জন্য।’








Leave a reply