রোজ রোজ ফুলকপি খেলে কী ক্ষতি বা লাভ হবে জানা আছে?

|

পছন্দ মতো রান্না করে দেদার খাচ্ছেন? ফুলকপি স্বাস্থ্যের উপকার করে নাকি ক্ষতি, ভেবে দেখেছেন একবার? বিশেষজ্ঞদের মতে, ফুলকপি আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করতেও সাহায্য় করে। তাই শীতকালে নিয়মিত খাবারের তালিকায় রাখা প্রয়োজন।

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, ফুলকপি আমাদের শুধু খেতেই সুস্বাদু নয়, স্বাস্থ্যের জন্যও দারুণ উপকারী। এতে থাকা উপকারী উপাদান, শরীরের ক্যানসার কোষগুলি ধ্বংস করে। বিশেষ করে স্তন ক্যানসারের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে ফুলকপি।

অনেকেরই ধারণা রয়েছে, ফুলকপি খেলে বুঝি পেটের গোলমাল দেখা দেয়। বিশেষজ্ঞরা সেই ধারণাকে নস্যাৎ করে জানাচ্ছেন, হজমশক্তি উন্নত করতে সাহায্য করে ফুলকপি। তার সঙ্গে শরীর থেকে যাবতীয় দূষিত পদার্থ বের করে দিতেও সাহায্য করে।

ফুলকপিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি। যা হাড় মজবুত রাখার জন্য খুবই জরুরি। হাড় সুস্থ রাখার জন্য পর্যাপ্ত ক্যালশিয়াম রয়েছে ফুলকপিতে।

গবেষকরা জানাচ্ছেন, বিভিন্ন সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ত্বককে সূর্যের অতিবেগুনী রশ্মির হাত থেকে রক্ষা করে ফুলকপিতে থাকা উপকারী উপাদান। ত্বকের ক্যানসারের ঝুঁকিও কমাতে সাহায্য করে।

ত্বকের মতো চুলের জন্যও দারুণ উপকারী ফুলকপি। যাঁদের চুল পাতলা হয়ে যাচ্ছে কিংবা চুল পড়ে যাওয়ার সমস্যা রয়েছে, তাঁদের নিয়মিত খাবারের তালিকায় ফুলকপি রাখার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। জানাচ্ছেন, চুলের ঘনত্ব বৃদ্ধিতে এবং চুল উজ্জ্বল করে তুলতে এটি দারুণ কার্যকরী।

স্নায়ুর বিভিন্ন সমস্যা প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে ফুলকপি। বিশেষজ্ঞদের মতে, নিয়মিত খাবারের তালিকায় রাখলে অ্যালজাইমার্স বা স্মৃতিভ্রংশের ঝুঁকি অনেকটা কমে।

যাঁদের উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা রয়েছে তাঁদের জন্যও খুবই উপকারী ফুলকপি। এটি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। পাশাপাশি রক্তে ক্ষতিকর কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে উপকারী কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

ফুলকপিতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। পাশাপাশি, শরীরে অতিরিক্ত মেদ জমতে দেয় না। ওবেসিটির হাত থেকে স্বাস্থ্যকে রক্ষা করে।

ডিসক্লেইমার : কপিতে উল্লেখিত দাবি, পদ্ধতি পরামর্শস্বরূপ। প্রয়োজনীয় চিকিৎসাপদ্ধতি/ডায়েট ফলো করার জন্য অবশ্যই বিশেষজ্ঞ / চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলুন ও সেইমতো নিয়ম মেনে চলুন।








Leave a reply