গাজীপুরে ৭ হাজার লিটার সয়াবিন তেল জব্দ

|

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের বোর্ডবাজার এলাকায় দুইটি প্রতিষ্ঠানের তেলের গুদামে অভিযান চালিয়ে সাত হাজারের বেশি লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করেছেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সদস্যরা। পরে এসব তেল সরকার নির্ধারিত দামে স্থানীয় ব্যক্তিদের কাছে বিক্রি করা হয়। অবৈধভাবে তেল মজুতের দায়ে প্রতিষ্ঠান দুটির মালিককে তিন লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে বিকেল পৌনে ৪টা পর্যন্ত এ অভিযান চালানো হয়। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তায় অভিযানে নেতৃত্ব দেন ঢাকার ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মাহবুবুর রহমান এবং প্রতিষ্ঠানটির গাজীপুর জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আবদুল জব্বার মণ্ডল।

আবদুল জব্বার বলেন, গাজীপুর মহানগরীর বোর্ডবাজারের একটি বিপণিবিতানে মনির ট্রেডার্সে নামের একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের গুদাম রয়েছে। ওই গুদামে অবৈধভাবে সয়াবিন তেল মজুত রাখার সংবাদের ভিত্তিতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ঢাকার একটি দল অভিযান পরিচালনা করে। গুদাম থেকে বিভিন্ন আকারের বোতলজাত করা ২ হাজার ৫৮ লিটার সয়াবিন তেল উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় গুদামের মালিক মনির হোসেনকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। পরে জব্দকৃত তেল সরকার নির্ধারিত মূল্যে স্থানীয় ব্যক্তিদের কাছে বিক্রি করা হয়।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, বোর্ডবাজার এলাকায় আরেকটি বিপণিবিতানের আরপি ট্রেডার্স নামের আরেকটি প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালোনো হয়। এ সময় ওই দোকানের গুদাম থেকে ৫ হাজার ১০০ লিটার খোলা তেল জব্দ করা হয়। জব্দ করা তেল তাঁদের উপস্থিতিতে স্থানীয় ব্যক্তিদের মধ্যে বিক্রি করা হয়। তবে এ গুদামের মালিককে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

দুটি প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়ে মোট ৭ হাজার ১৫৮ লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করা হয়েছে বলে জানান আবদুল জব্বার। তিনি বলেন, এখন থেকে গাজীপুরে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযান নিয়মিত পরিচালনা করা হবে।








Leave a reply