নায়িকা মিমি চক্রবর্তী রাস্তায় পড়ে থাকা বৃদ্ধকে চিকিৎসা দিলেন

|

জনপ্রিয় অভিনেত্রী। তার ছবিগুলো সবসময়ই দর্শকের কাছে বাড়তি আগ্রহের। গ্ল্যামার, রূপ ও অভিনয় দিয়ে তিনি কাজ করে চলেছেন একের পর এক। অভিনেত্রী পরিচয়ের বাইরে মিমি চক্রবর্তী একজন সাংসদও। সবাই যখন করোনায় ঘরবন্দি তখন নিজের এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়াতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ছুটে গেছেন মিমি।

একজন মানবিক অভিনেত্রী হিসেবে বরাবরই প্রশংসা পেয়ে আসছেন তিনি। এবার তিনি এগিয়ে এলেন এক বৃদ্ধের জন্য। সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া পোস্টের মাধ্যমে মিমি এক অসুস্থ বৃদ্ধের কথা জানতে পারেন। পরে খোঁজ নিয়ে নিজ উদ্যোগে তাকে হাসপাতালে ভর্তির করিয়েছেন এই ব্যবস্থা করলেন সাংসদ অভিনেত্রী।

জানা গেছে, শনিবার (২২ আগস্ট) কলকাতার শেক্সপীয়র সরণিতে এক অসুস্থ বৃদ্ধকে বেঞ্চের উপর পড়ে থাকতে দেখেন আরাধনা চট্টোপাধ্যায় ও জয়দীপ সেন নামে দুই ব্যক্তি। তারা দেখেন বৃদ্ধের পায়ে গ্যাংরিন হয়ে গিয়েছে। তার পায়ে সংক্রমণ এতটাই বেশি যে উঠে দাঁড়ানোর ক্ষমতাও ছিল না।

বৃদ্ধকে আরাধনা ও জয়দীপ খাবার ও জল দেন। তারা বুঝতে পারেন, এই বৃদ্ধের অবিলম্বে চিকিৎসার প্রয়োজন। সঙ্গে সঙ্গেই বিভিন্ন হাসপাতাল ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টাও করেন আরাধনা-জয়দীপ। বর্তমান করোনা পরিস্থিতির কারণে কোনো চিকিৎসকই বৃদ্ধকে সাহায্য করার জন্য সেখানে যাননি।

অগত্যা কোনো উপায় না দেখতে পেয়ে সোশাল মিডিয়ায় গোটা বিষয়টি পোস্ট করেন আরাধনা ও জয়দীপ। তাদের সেই পোস্ট চোখে পড়তেই বৃদ্ধকে চিকিৎসা দেয়ার জন্য এগিয়ে আসেন মিমি চক্রবর্তী। কলকাতা পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে ওই অসুস্থ বৃদ্ধকে শম্ভুনাথ পণ্ডিত হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করেন তিনি।

শুধু ভর্তি করাই নয়, বৃদ্ধের খোঁজ খবরও নিচ্ছেন সাংসদ অভিনেত্রী। পুরো ঘটনার কথা ফেসবুকে পোস্ট করেছেন আরাধনা ও জয়দীপ। বিষয়টি নজরে আনার জন্য টিম মিমির তরফেও জয়দীপ সেন ও আরাধনা চট্টোপাধ্যায়কে ধন্যবাদ জানানো হয়েছে।








Leave a reply