আবারও বিশ্বকে চমকে দিল রাশিয়া! প্রস্তুত দ্বিতীয় করোনা ভ্যাকসিন,কোনো সাইড এফেক্ট থাকবে না

|

ফের বিশ্বকে চমকে দিয়ে করোনা নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিল রাশিয়া। ইতিমধ্যেই বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন স্পুটনিক V আবিষ্কার করে সারা বিশ্বকে অবাক করে দিয়েছে রাশিয়া। এবার ফের রাশিয়া সবাইকে হতবাক করে নিয়ে এল দ্বিতীয় করোনা ভ্যাকসিন এপিভ্যাককরোনা। বিশ্ববাসীকে আবারও চমকে দিয়ে দ্বিতীয় ভ্যাকসিনের বিষয়ে ঘোষণা করল রাশিয়া সরকার। প্রস্তুত দ্বিতীয় করোনা ভ্যাকসিন এপিভ্যাককরোনা (EpiVacCorona)।

রাশিয়ার স্পুটনিক V
গত ১১ ই আগস্ট রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিনের বিষয়ে বিশ্ববাসিকে অবগত করে এই প্রতিষেধক ভাগ করে নেওয়ার কথা জানিয়েছিলেন। যার প্রথম প্রয়োগ করা হয়েছিল স্বয়ং পুতিনের কন্যার উপর। প্রথম প্রস্তুত করোনা ভ্যাকসিন স্পুটনিক V, মানব শরীরে তাঁর কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা গেছিল। যেমন হালকা জ্বর অনুভূত হচ্ছিল, প্যারাসিটামল খেলেই তা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে বলেও জানা গিয়েছিল।
দ্বিতীয় করোনা ভ্যাকসিন এপিভ্যাককরোনা
বিশ্ববাসীকে আবারও হতবাক করে দিয়ে দ্বিতীয় ভ্যাকসিনের বিষয়ে ঘোষণা করল রাশিয়া। সাইবেরিয়ার ওয়ার্ল্ড ক্লাস ভাইরোলজি ইনস্টিটিউটেই এই এপিভ্যাককরোনা ভ্যাকসিন প্রস্তুত করা হয়েছে। সম্ভবত সেপ্টেম্বরেই এর চূড়ান্ত ট্রায়াল সম্পন্ন হবে বলেও জানা গিয়েছে।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকছে এই ভ্যাকসিন প্রয়োগে?
সবথেকে গুরুত্ব পূর্ণ দিকটি হল, প্রথম ভ্যাকসিনে সামান্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা গেলেও, এই দ্বিতীয় ভ্যাকসিনে থাকছে না কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া, এমনটাই জানা গিয়েছে। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই এই এপিভ্যাককরোনা ভ্যাকসিন ৫৭ জন স্বেচ্ছাসেবীর উপর প্রয়োগ করা হয়েছে। তারা সকলেই সুস্থ রয়েছেন। এই পরীক্ষাধীন ব্যক্তিদের মধ্যে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা যায়নি।
কিভাবে প্রয়োগ হবে এই ভ্যাকসিন?
এই ভ্যাকসিনেরও দুটি ডোজ দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে। প্রথম ডোজ দেওয়ার ১৪ থেকে ২১ দিনের মধ্যে দ্বিতীয় ডোজটি দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। রাশিয়ার সরকার আশাবাদী, অক্টোবরের মধ্যেই সমস্ত পরীক্ষা নিরীক্ষা সম্পন্ন করে নভেম্বর থেকেই এই ভ্যাকসিনের উৎপাদন শুরু করা হবে।

ভ্যাকসিন প্রস্তুত চলছে জোরকদমেই
প্রসঙ্গত, ভেক্টর স্টেট রিসার্চ সেন্টার অফ ভাইরোলজি অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি ১৩ টি করোনা ভাইরাস নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে। সেইসঙ্গে এই ভ্যাকসিন প্রস্তুতের দৌড়ে সামিল রয়েছে ভারত, চীন, আমেরিকা, ব্রিটেনও।








Leave a reply