ওসি প্রদীপ ৮ লাখ টাকা না পেয়ে দুই ভাইকে ক্রসফায়ারে দেন।

|

সি’নহা হ’ত্যা মা’মলার প্রধান আ’সামি প্রদীপের বি’রু’দ্ধে আবারো ক্র’সফা’য়ারের নাট’ক সাজিয়ে মে’রে ফেলার অ’ভিযোগ উঠেছে।

৮ লাখ টাকা না দেয়ায় হ’ত্যা করা হয় চট্টগ্রামের চ’ন্দনাইশের দুই ভাইকে। পরিবারের দাবি এ ঘ’টনায় জ’ড়িত ছিলো চ’ন্দনাইশ থা’নার পু’লিশও।

বড় ভাই ফারুকের ছোট্ট মে’য়ে আইবির সামনের অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ। তার আকুতি বাবা-চাচা হ’ত্যার বি’চার যেন হয়।

গত ১৩ জুলাই মুঠোফোনে ছোট ভাই আজাদকে ডেকে নিয়ে যায় পু’লিশ। ১৪ তারিখ বিজিসি ট্রাস্টের সামনে থেকে নিয়ে যায় বড় ভাইকেও।

সিটিটিভির ফুটেজে দেখা যায় বড় ভাই ফারুককে লালশার্ট পরা চ’ন্দনাইশ থা’নার এসআই আরিফ তুলে নিয়ে যাচ্ছেন।

সাথে ছিলেন ওসি ত’দন্ত মজনুসহ ৫ থেকে ৬ জন। তাদের তুলে দেয়া হয় সাবেক ওসি প্রদীপের হাতে। পরে ৮ লাখ টাকা দাবি করেন টেকনাফ থা’নার পু’লিশ।

টাকা না দেয়ায় ১৬ জুলাই পরিবার জানতে পারে টেকনাফে দুই ভাই নি’হ’ত হয়েছেন। বিচার বহির্ভূত এমন ক্র’সফা’য়ার সম’র্থন করেন না বলে জানান স্থানীয় সংসদ সদস্য নজরুল ইস’লাম চৌধুরী।

তিনি বলেন, শুনেছি দুজন ছে’লে ই’য়াবা ব্যবসায় জ’ড়িত ছিল। ক্র’সফা’য়ার করা হইছে। ক্র’সফা’য়ার সম’র্থন করি না। গত ৬ বছর ধরে থাকা বাহরাইন প্রবাসী আজাদ দেশে আসেন গত রমজানে। আর ফারুক পেয়ারা ব্যবসায়ী।








Leave a reply