ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি পানির নিচে

|

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি ভারী বৃষ্টিতে ডুবে গেছে । রাস্তাঘাট তলিয়ে যাওয়ায় ব্যাহত হচ্ছে যান চলাচল। দিল্লির গুরগাঁওসহ আশপাশের এলাকায় ঘরবাড়ি ডুবে দুর্ভোগ চরমে উঠেছে। বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে বিহারেও। প্রায় ৮২ লাখ বাসিন্দা বন্যার কবলে পড়েছেন। এছাড়া কেরালার ইডুক্কিতে বৃষ্টিতে ভূমিধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬২ তে।

গতকাল বুধবার রাতভর ভারী বৃষ্টিতে তলিয়ে যায় ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি। স্থানীয় গণমাধ্যম বলছে, একদিনেই দিল্লিজুড়ে প্রায় ৭১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। যা অন্যান্য বছরের এই সময়ের তুলনায় প্রায় ছয়গুণ।

আকস্মিক বন্যা দেখা দিয়েছে দিল্লির পার্শ্ববর্তী গুরগাঁও শহরেও। ভাসছে বসতবাড়িসহ নানা স্থাপনা। রাস্তাঘাট তলিয়ে যাওয়ায় ব্যাহত হচ্ছে যান চলাচল। ফ্লাইওভার এবং আন্ডারপাসগুলোতেও জলজট সৃষ্টি হয়েছে। আগামী কয়েকদিন বৃষ্টিপাত আরও বাড়ার আশঙ্কা কর্তৃপক্ষের।

গুরুগাঁও মিউনিসিপ্যাল কমিশনার বিনয় প্রতাপ সিং জানিয়েছেন, ‘এ পর্যন্ত ১২৫ থেকে ১৩০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। শহরের গল্ফ কোর্সটাও ডুবে গেছে। আমরা ডাম্পিং মেশিন দিয়ে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করছি। আশা করছি শুক্রবার সকাল নাগাদ জলাবদ্ধতা দূর হবে।’

এদিকে, বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে পূর্বাঞ্চলীয় বিহার রাজ্যেও। অব্যাহত বৃষ্টিতে পাটনাসহ রাজ্যের ১৬টি জেলার বাসিন্দারা বন্যা কবলিত হয়েছেন। এছাড়াও, দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্যে কেরালার ইডুক্কিতে টানা বৃষ্টিতে সৃষ্ট ভূমিধসের ঘটনায় ৯ বছর বয়সী আরও এক শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।








Leave a reply