হাসপাতালে দিন দিন বাড়ছে চোরের উৎপাত!

|

কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে গত এক সপ্তাহ ধরে বেড়ে চলেছে চোরের উৎপাত। রোগীদের মোবাইল ফোন, টাকা পয়সা, আসবাবপত্র সহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র চুরি হয়ে যাচ্ছে হাসপাতাল থেকে। সাথে রয়েছে কিছুটা বিড়ম্বনাও, অনেক সময় চুরি হওয়া জিনিস ফিরে পেতেও বেগ পেতে হচ্ছে রোগীর স্বজনদের।

রোগীদের স্বজনদের দেয়া তথ্যে দেখা যায়, হাসপাতাল চত্বরের মহিলা ও পুরুষ ওর্য়াডে অবাধে ঘোরা-ফেরা করছে ৪-৫ জন মহিলা। তাদের দেখতে অনেকটা মানসিক ভারসাম্যহীন মনে হলেও তাদের আচরন আবার স্বাভাবিক মানুষদের মতো।

এসব মহিলারা চুরি, অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ সহ নানা অপকর্ম করছে হাসপাতালটিতে। এদের উৎপাত দিনের তুলনায় রাতে বেশি দেখা যায়। এতে বিরম্বনায় পড়ছেন হাসপাতালের রোগী ও তাদের স্বজনরা। ৪ নং ওর্য়াডের পুরুষ বিভাগে ভর্তি আব্দুল সবুর জানালেন, “আমি গত শুক্রবারে ভর্তি হয়েছি হাসপাতালে,আমার মোবাইল ফেন গতকাল চুরি হয়, আজ অনেক খোজাখুজির পর একজন পাগলির কাছে ফোনটা পাই।”

আরেক রোগী আব্দুস সালাম বলেন,”গতকাল রাতে আমার এগারোশো টাকা হারিয়ে যায়, পরে জানতে পারি ১জন পাগলি নেয় টাকা,সে ৫০০ টাকা ফেরত দিলেও বাকি টাকা এখনো দেয় নি।”

এদিকে মানসিকভারসাম্যহীন এসব মহিলার উৎপাতে অতিষ্ঠ রোগীদের সেবা দেয়া নার্সরাও, তারাও ক্ষিপ্ত হয়ে জানান যে, হাসপাতাল দিন-রাত চব্বিশ ঘন্টা খোলা থাকে।

কয়েকবার তাড়িয়ে দেবার পরও এদের উৎপাত কমেনি বাড়ছে। আমরাও বিরক্ত এদেরকে নিয়ে।

এ বিষয়ে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. রেদওয়ান ফেরদৌস মুঠোফোনে বার্তা বাজার’কে জানান,”আমাদের বিষয়টি জানা ছিলো না, আমরা এ বিষয়ে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবো।”








Leave a reply