যুক্তরাষ্ট্র : হিজাব পরিধানে নিষেধাজ্ঞা ধর্মীয় স্বাধীনতার লঙ্ঘন

|

ভারতের কর্ণাটকে মুসলিম ছাত্রীদের হিজাব পরার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া ধর্মীয় স্বাধীনতার লঙ্ঘন বলে মন্তব্য করেছে যুক্তরাষ্ট্র। শুক্রবার (১১ ফেব্রুয়ারি) আন্তর্জাতিক ধর্মীয় স্বাধীনতা বিষয়ক (আইআরএফ) মার্কিন অ্যাম্বাসাডর অ্যাট লার্জ রাশাদ এমন মন্তব্য করেছেন।

এক টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ‘ধর্মীয় স্বাধীনতার মধ্যে একজনের ধর্মীয় পোশাক বেছে নেয়ার ক্ষমতা অন্তর্ভুক্ত। কর্ণাটকে ধর্মীয় পোশাকের অনুমতি নির্ধারণ করা উচিত নয়। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হিজাব নিষিদ্ধ করা ধর্মীয় স্বাধীনতা লঙ্ঘন করে।

লার্জ রাশাদের মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় ভারত বলেছে, ‘অভ্যন্তরীণ বিষয়ে উদ্দেশ্যমূলক মন্তব্যকে স্বাগত জানানো হবে না।’ ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি বলেছেন, ‘যারা ভারত সম্পর্কে ভালোভাবে জানেন, তারা যথাযথ বাস্তবতা উপলব্ধি করবেন।’

উল্লেখ্য, কর্ণাটকের একটি সরকারি কলেজের কয়েকজন মুসলিম ছাত্রীকে হিজাব পরার কারণে শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করতে অস্বীকৃতি জানানো হয়। কলেজ কর্তৃপক্ষ জানায় তারা হিজাব পরে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে পারলেও শ্রেণিকক্ষে ঢুকতে পারবে না। হিজাব পরা শিক্ষার্থীরা এর প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে। বিষয়টি কর্ণাটকের বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভ আকারে ছড়িয়ে পড়েছে। কিছুসংখ্যক শিক্ষার্থী পাল্টা গেরুয়া ওড়না পরে হিজাব পরার বিরোধিতা করলে উত্তেজনাও ছড়ায়। এ পরিস্থিতিতে রাজ্যে তিন দিন শিক্ষায়তন বন্ধ ঘোষণা করা হয়।








Leave a reply