করোনাকালে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে বাজারে এসে গেল কাঁচা হলুদ স্বাদের আইসক্রিম

|

ইতোমধ্য়েই মিষ্টির বাজারে ছেয়ে গিয়েছে ইমিউনিটি বুস্টিং সন্দেশ। রসগোল্লা, মিষ্টি দইয়ের পাশাপাশি এই ইমিউনিটি বুস্টিং সন্দেশও হট কেকের মতো বিকোচ্ছে। এবার ইমিউনিটি বাড়াতে বাজারে চলে এল হলদি আইসক্রিমও। বাজারে কাঁচা হলুদ স্বাদের আইসক্রিম আনল আমূল। ট্যুইটারে সংস্থাটি জানিয়েছে, তাদের নতুন আইসক্রিমে থাকছে কাঁচা হলুদের স্বাদ। তবে হলুদই একমাত্র উপাদান নয়। আমূলের আইসক্রিমে থাকছে দুধ, মধু, গোলমরিচ, খেজুর, আমন্ড এবং কাজুবাদাম।

চিকিৎসকরা বলছেন, করোনাকে দূরে রাখছে চাই ইমিউনিটি। কিন্তু শরীরের রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়বে কী করে? এর জন্য বাড়ির পুষ্টিকর খাবার আর গাদাগাদা ভিটামিন ওষুধের অপশন তো রয়েছেই। এর পাশাপাশি একটু স্বাদ বদলেও ইমিউনিটি বাড়ানোর উপায় খুঁজছেন অনেকে। তাঁদের কথা মাথায় রেখে ইতোমধ্যেই আদা, তুলসি, হলুদ ফ্লেভারের প্রোডাক্ট বাজারে এনেছে আমুল। এই ধরনের ইমিউনিটি বাড়ানোর উপদানকে হাতিয়ার করেই করোনার বাজারে বাজিমাত করতে চাইছে সংস্থাটি।

খাবার নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা দিন দিন বাড়ছে। কখনও আমাদের সামনে আসছে ম্যাগি ফুচকা, চকোলেট ম্যাগি, কখনও আবার আসছে নিউটেলা বিরিয়ানি, ওরিও আইসক্রিম সিঙাড়া। বাজারে তো মিলছেই হরেকরকম খাবার। সোশ্যাল মিডিয়াতেও বাড়িতে বানানো রকমারি খাবারের ছবির ভিড়।
সেই ফিউশন ফুডের তালিকাতেই এবার নতুন সংযোজন আমুলের কাঁচা হলুদ স্বাদের আইসক্রিম। তবে হলুদেই শেষ নয়। এরপর আদা ও তুলসির স্বাদের আইসক্রিমও বাজারে আনতে চলেছে সংস্থাটি।

সম্প্রতি কেরলের ‘ডেয়ারি ডে’ নামে একটি সংস্থাও কাঁচা হলুদের স্বাদের আইসক্রিম বাজারে এনেছে। শুধু তাই নয়, সংস্থাটি চবনপ্রাশ আইসক্রিমও এনেছে ক্রেতাদের জন্য। তাদের দু’টি প্রোডাক্ট নিয়ে ফেসবুকে পোস্টও দিয়েছে। পোস্টে দাবি করা হয়েছে, এই আইসক্রিম স্বাস্থের পক্ষে ক্ষতিকারক নয়। এবং এগুলি নাকি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় আমূলের ঘোষণার পর থেকেই হলদি আইসক্রিম নিয়ে হইচই পড়ে গিয়েছে। ট্যুইটারে একজন মজা করে লিখেছেন, ‘এরপর কি করলার আইসক্রিম আসতে চলেছে?’ আরেকজন লিখেছেন, ‘লকডাউনে মানুষের ক্রিয়েটিভিটির লেভেলই বেড়ে গিয়েছে।’ আরেক ট্যুইটার ইউজারের প্রশ্ন, ‘আইসক্রিমে হলুদ, গোলমরিচ? একটু নুন মিশিয়ে দিলে হত না?’ সোশ্যাল মিডিয়ায় ঠাট্টা-ইয়ার্কির মধ্যেই সকলে অবশ্য একমত। ইমিউনিটি বাড়ুক না বাড়ুক, একবার খেয়ে দেখতেই হবে আমূলের হলদি আইসক্রিম।








Leave a reply